M3 Views

কলকাতা চলচ্চিত্র উত্সব - বছর শেষের এক স্মরনীয় ঘটনা

অমিয় চৌধুরী  | November 25, 2013

কোন ঘটনাই একটু বিশদ ভাবে না বললে ঘটনাটার প্রতি বোধ হয় ন্যায় বিচার হয় না। তবু সংক্ষেপে বলার একটা উদ্দেশ্য, কৌতূহল এবং মাধুর্য থাকে।

গত দশ নভেম্বর থেকে টানা আটদিন পশ্চিমবঙ্গ চলচ্চিত্র উৎসব হয়ে গেল। প্রায় ১৮৯টি ছবি দেখানো হল ৬৬টি দেশের। কোন দেশ নেই এখানে! ইরান, ইজরায়েল, আমেরিকা, ফ্রান্স, গ্রীস ইত্যাদির সাথে ভারতীয় হিন্দি এবং বাংলা ছবিও ছিল। এবার সাতটি ছবি ছিল বাংলার স্বর্ণযুগের। কলকাতার বিভিন্ন হলে, উত্তর ও দক্ষিণ এবং মধ্যকলকাতার স্বরনীয় নন্দন প্রেক্ষাগৃহে। কোন জিনিসই সকলকে ভালো লাগানো যায় না। সব সময়ই একথা মেনে নিলে শান্তি।

এক মহলে প্রশ্ন উঠে গেছে উদ্বোধনি মঞ্চে কেন ডাকা হল না তরুণ মজুমদার ও সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে। ১৯তম চলচ্চিত্র উৎসবকে ঠিক গত বছরের ১৮তম উৎসবের মতই বাহারি কায়দায় নাচা কোঁদা হল। এদের যুক্তি হল অমিতাভ বচ্চন, শাহরুখ খান, কমল হাসান এরাতো নেচে কুঁদে, মার দাঙ্গা করে রূপোলী পর্দায় ধরা দেন। এদের কিন্তু একবারও মনে হল না অমিতাভ বচ্চন অভিনীত "ব্ল্যাক", অভিমান ইত্যাদি ছবিগুলোর কথা। ওরা সিনেমা পণ্ডিত। কথায় কথায় উঠে আসে আলেকজান্ডার সোকুলব, আঁন্দ্রে ভাইডা, জাঁলুক গোদার বা বুনুয়েল ইত্যাদির নাম। এদের মধ্যে সমঝদার ছিলেন বটে বঙ্গরত্ন আঁতেল বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য – যার সঙ্গে প্রায়ই সান্ধ্য বৈঠকে আড্ডায় বসে ছবি, সাহিত্য অথবা পাশ্চাত্য সঙ্গীতের ব্যকরণ নিয়ে উচ্চ মার্গের আলোচনা চলত। সব ব্যাপারেই এরা নিম্নবর্ণীয় এক রাজনীতির গন্ধ পান বর্তমান মূখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-এর নড়া চড়া কথা বলা এবং শেষ সিদ্ধান্ত নিয়ে। নাক উঁচু নকল এলিট সম্প্রদায়ের কাছে অমিতাভ, শাহরুখ, কমল হাসানরা সবসময়ই অচ্ছুত।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হল গতবারের মতই নেতাজি ইনডোর স্টেডিয়ামে। বাঁধ ভাঙ্গা মানুষের ভিড়। গ্যালাড়িতে তিল ধারণের জায়গা নেই। টলিউড, মমতার কথায় টেলিউড এবং কিছু হলেও বলিউডের অভিনেতাদের সাক্ষাত পাওয়া গেছে। আর কলকাতার জ্ঞানী এবং অভিনয় সমৃদ্ধদের কাছে নিমন্ত্রন পত্র পাঠানো হলে, হয় তাদের বুদ্ধ আমলের মনোকাঠামো অথবা রাজ্যের সর্বোচ্চ প্রশাসকের টেলিফোন না যাওয়ায় তারা নেতাজি ইনডোরকে ধন্য করতে পারেননি। অথচ একবারও ভেবে দেখলেন না অমিতাভ বচ্চনের উদ্বোধনি অসামান্যতার ব্যপ্তি। একশ বছরের বাংলা সিনেমার বিশ্লেষনী ইতিহাসকে যারা বিদ্বেষ বশে বা রাজনৈতিক ক্রোধে আচ্ছন্ন এবং সিনেমার যে কোন ক্ষেত্রে যুক্ত তাদের মধ্যে এমন স্বচ্ছ সিনেমা ইতিহাস, সিনেমাটোগ্রাফিক বিশ্লেষণ কজন করতে পারবেন? এমন একটা সন্দেহ থেকেই যায়। এদের মধ্যে একটু খাঁটো যারা তারা পত্র পত্রিকায় লিখেও ফেললেন। শিল্পের ক্ষেত্রে, সিনেমা উদ্বোধনে সরকারের নাক গলানোর দরকারটা কোথায়! ওদের বলতে ইচ্ছে করে – আপনারা সিনেমা বোদ্ধারা এতদিন কোথায় ছিলেন! আপনাদের উদ্দেশ্যতো মমতাকে একহাত নেওয়া। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বঙ্গ তনয়া উনি সবই বোঝেন। অতএব আশা করবেননা, নিদেনপক্ষে হরিণের চকিত চোখ তুলে বলবেন – এতদিন অর্থাৎ এই ৩৪ বছর কোথায় ছিলেন!

মমতা অবশ্যই ধন্যবাদ পাবেন অসংখ্য সাধারণ এবং কিছু অসামান্য মানুষের কাছে। এলিট সম্প্রদায় এবং তাদের তাঁবেদারদের কবল থেকে সিনেমা নামক শিল্পটির বিভিন্ন ধারাকে জনমানুষের বৈভবহীন নিকটত্বে। আগামী বছরকে সামনে রেখে এবারকার মত ১৯তম চলচ্চিত্র উৎসব শেষ হল সায়েন্স সিটি মঞ্চে। সিনেমার সঙ্গে যুক্ত পঞ্চকন্যাকে সম্মান জানালেন রাজ্যের মূখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রেক্ষাগৃহ থেকে বেরিয়ে এলেন মধ্যবয়স্ক এক ভদ্রলোক। তিনি বলতে বলতে বেরোলেন – বাংলায় জন্মেছেন – মুম্বাই এবং বাংলার অভিনেত্রী পঞ্চকন্যাকে সম্বর্ধনা জানালেন মমতা। আর আমরা জানালাম ষষ্ঠ কন্যাকে। তিনি ষষ্ঠ হলেও তিনিই এক। এই প্রেক্ষাগৃহে তিনি সাদামাটা সাধারণ মেয়ে হলেও অসাধারণত্বে তিনি উদ্ভাসিত।

< Back to List

 
Comments (0)
 
 
Post a Comment Comments Moderation Policy
 
Name:    Email:
 
Comment:
 
 
 
Security Code:
(Please enter the security code shown above)
 

Comments and Moderation Policy

MaaMatiManush.tv encourages open discussion and debate, but please adhere to the rules below, before posting. Comments or Replies that are found to be in violation of any one or more of the guidelines will be automatically deleted.

  • Personal attacks/name calling will not be tolerated. This applies to comments or replies directed at the author, other commenters or repliers and other politicians/public figures. Please do not post comments or replies that target a specific community, caste, nationality or religion.

  • While you do not have to use your real name, any commenters using any MaaMatiManush.tv writer's name will be deleted, and the commenter banned from participating in any future discussions.

  • Comments and replies will be moderated for abusive and offensive language.

×

© 2017 Maa Mati Manush About Us  |  Contact   |   Disclaimer   |   Privacy Policy   |   Site Map